ফরিদপুরে আ’লীগের দু’গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, আহত ২৫ - SHOMOYSANGBAD.COM

শিরোনাম

Thursday, February 13, 2020

ফরিদপুরে আ’লীগের দু’গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, আহত ২৫


ফরিদপুর প্রতিনিধি:
ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার হামেরদী ইউনিয়ন পরিষদের সামনে আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে কেন্দ্রে করে দুই গ্রুপের ৫ গ্রামবাসীর মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়েছে। বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সকালে উপজেলার মুনসুরাবাদ বাজারে ঘন্টাব্যাপি চলা এ সংঘর্ষে উভয় কমপক্ষের ২৫ জন লোক আহত হয়েছে।


আহতদের ভাঙ্গা ও মুনসুরাবাদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সংঘর্ষ চলাকালে মুনসুরাবাদ বাজারের ইট ও লাঠির আঘাতে কয়েকটি দোকানঘর ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। খবর পেয়ে ভাঙ্গা থানা ওসি মোঃ শফিকুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে মহাসড়কসহ বাজারের গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। গুরুত্বর আহতরা হলো-আক্রাম, হায়দার ফকির, চাতক ফকির, হান্নান মাতুব্বর, ওসমান মিয়া, তুহিন মাতুব্বর, বাবর আলী ও পরিরানী মালো।


এলাকাবাসি জানায়, হামেরদী ইউনিয়ন পরিষদের সামনে মুনসুরাবাদ বাজারে হামেরদী ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সম্মেলন চলছিল। সম্মেলনের মধ্যে আ-লীগ নেতা ধনি মেম্বার, শহরআলীর সাথে বাবর আলী মেম্বার, হান্নান ও মোস্তাফা লোকজনে সাথে কথা কাটাকাটি এক পর্যায় হাতাহাতি হয়। তখনই বিষয়টি নিয়ে উপস্থিত উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সাইফুর রহমান মিরন ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আকরামুজ্জামান রাজাসহ নেতা-কমীরা মীমাংসার চেষ্টা চালায়। তাদের কথায় কর্ণপাত না করে তারা বিষয়টি দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে আশপাশের সুনসুরাবাদ, খাপুরা, ভীমেরকান্দা, মাঝিকান্দা ও সিংগারডাক গ্রামসহ ৫টি গ্রামে ছড়িয়ে পড়ে। তখন উক্ত গ্রামের লোকজন দেশীয় অস্ত্র ঢাল, সরকি, রামদা, ইট-পাটক্কেল নিয়ে মুনসুরাবাদ বাজার ও বিশ্বরোড দুই পাশে অবস্থান নেয়। ঘন্টাব্যাপি এক গ্রুপ অন্য গ্রুপের উপরে হামলা ও ইট পাটকেল চালাতে থাকে। ঐ সময়ে বাজারের লোকজন আতংক হয়ে দৌঁড়াদৌড়ি করে পালাতে থাকে এবং বাজারের উপর একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা ভীতগ্রস্থ হয়ে পড়লে শিক্ষককেরা প্রধান গেট বন্ধ করে তাদের নিয়ে নিরাপদে অবস্থান নেয়। খবর পেয়ে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মুকতাদিরুল আহম্মেদ ও ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুর রহমান উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। এঘটনার পর আওয়ামীলীগের সম্মেলন স্থগিত ঘোষণা করা হয়।

এ ব্যাপারে ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হই। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। তবে মোড়ে মোড়ে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এরির্পোট লেখা পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি।

No comments:

Post a Comment