রাজিবপুরে ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী শাহনাজের প্রেমের ফসল গর্ভ, প্রেমিক দ্বারা গর্ভপাত - SHOMOYSANGBAD.COM

শিরোনাম

Saturday, May 11, 2019

রাজিবপুরে ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী শাহনাজের প্রেমের ফসল গর্ভ, প্রেমিক দ্বারা গর্ভপাত

রফিকুল ইসলাম, রাজিবপুর প্রতিনিধি-
কুড়িগ্রামের রাজিবপুর উপজেলার মোহনগঞ্জ ইউনিয়নের নয়াচর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণী পড়–য়া শাহনাজ (১৩) এবং গাইবান্ধায়  ডিপ্লোমা পড়ু
য়া জাহাঙ্গীর (২৩) এ দুজন নিকটতম প্রতিবেশি। শাহনাজ সাবেক ইউপি সদস্য সানোয়ার হোসেন এর কন্যা। প্রতিবেশি কামাল ব্যাপারীর ও মর্জিনা বেগম এর পুত্র জাহাঙ্গীর আলম।
সকলের অন্তরালে প্রায় দেড় বছর যাবৎ এ দুজনের মধ্যে চলছিল প্রেম-ভালবাসা। শুধু প্রেমই নয় অবৈধ শারীরিক সম্পর্কেও জড়িয়েছে অসংখ্য বার। ফলে শাহনাজের অজান্তেই গর্ভে আসে সন্তান। শাহনাজ না বুঝতে পারলেও গর্ভ ধারণের নমুনায় বুঝতে পেরেছে শাহনাজের মা। কৌশলে জিজ্ঞাসাবাদ করায় মুখ খুলতে বাধ্য হয় শাহনাজ।
এ বিষয়টি গ্রাম্য মাতব্বরদের জানায় শাহনাজের পিতা-মাতা। পরে কয়েকজন মাতব্বর জাহাঙ্গীর এর পরিবারকে তলব করে বিষয়টি মিমাংশার জন্য শাহনাজকে বিয়ে করতে বলা হলে, আমলে নেয় নি ঐ পরিবারের কেউ। 
কিন্তু গত ৫ মে বিবাহের কথা বলে ডেকে নিয়ে প্রেমিক জাহাঙ্গীর, জাহাঙ্গীরের মা, ফুফু এবং ছোট বোন মিলে প্রেমের ফসল ৩ মাসের অন্ত:স্বত্তা শাহনাজকে জোড়পূর্বক ঘরে আটক করে গর্ভপাতের ট্যাবলেট খাওয়ায় এবং তাকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। 
ফলশ্রæতিতে কয়েক ঘন্টা পর গর্ভপাতের সূচনা দেখা দিলে শাহনাজকে দ্রæত রাজিবপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিয়ে আসে তার পিতা-মাতা এবং আশঙ্খা জনক অবস্থায় সাময়িক চিকিৎসা প্রদান করে কর্তব্যরত চিকিৎসক।  পরে গর্ভপাতের ঘটণাটির সত্যতা মিললে শাহনাজকে হাসপাতে ভর্তি করা হয়। ঘটণাটি ঘটেছে কুড়িগ্রাম জেলার চর রাজিবপুর উপজেলার মোহনগঞ্জ ইউনিয়নের মোল্লা পাড়া গ্রামে। 

No comments:

Post a Comment