মেহেরপুরের গাংনীতে বসত বাড়ীর পাশে প্রায় ১ বিঘা জমিতে গাঁজা চাষ \ ২ শতাধিক গাঁজা গাছ উদ্ধার - SHOMOYSANGBAD.COM

শিরোনাম

Friday, July 31, 2020

মেহেরপুরের গাংনীতে বসত বাড়ীর পাশে প্রায় ১ বিঘা জমিতে গাঁজা চাষ \ ২ শতাধিক গাঁজা গাছ উদ্ধার


মেহের আমজাদ,মেহেরপুর //
মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার মটমুড়া ইউনিয়নের পুরাতন মটমুড়া গ্রামে বসত বাড়ীর পাশে প্রায় ১ বিঘা জমি থেকে ২শতাধিক গাঁজা গাছ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গাংনীর মটমুড়া গ্রামের মালিথা পাড়ার কাশেম আলীর ছেলে দুলালের জমি থেকে গাঁজার গাছগুলো উদ্ধার করা হয়।  দুলাল পলাতক থাকলেও পুলিশ সেখান থেকে দুই শতাধিক গাঁজা গাছ উদ্ধার করেছে। গাংনী থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ওবাইদুর রহমান জানান, মেহেরপুরের  পুলিশ সুপার এস এম মুরাদ আলী’র নির্দেশনায় গাংনী উপজেলাকে মাদক মুক্ত করার লক্ষে তিনি তার টিম নিয়ে রাত-দিন নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন। গাংনী থানায় যোগদান করার পর থেকে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণে উল্লেখযোগ্য হারে মাদক পাচারকারী আটক ও মাদক দ্রব্য জব্দ করতে সক্ষম হয়েছেন। গাংনী উপজেলাকে মাদক মুক্ত করার জন্য গত সপ্তাহ থেকে তিনি অভিযান ও তৎপরতা বৃদ্ধি এবং গতিশীল করেছেন। এরই অংশ হিসেবে গত বুধবার রাতে তিনি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুরাতন মটমুড়া গ্রামের মালিথা পাড়ায় জনৈক দুলাল নামের এক ব্যক্তি বসত বাড়ীর পাশে গাঁজা চাষ করছেন জানতে পেরে সেখানে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় প্রায় এক বিঘা জমিতে দুই শতাধিক গাঁজা গাছ দেখতে পান তিনি। ফলে গাংনী থানা পুলিশের একটি বিশেষ টিম ওই এলাকায় প্রহরা বা নজরদারীতে রাখেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৭ টার দিকে মেহেরপুর পুলিশ সুপার এস এম মুরাদ আলী ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। পুলিশ সুপার এ এম মুরাদ আলী ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে বলেন, মেহেরপুুর জেলার গাংনী উপজেলাধীন মটমুড়া ইউনিয়নের পুরাতন মুটমুড়া গ্রামের মালিথা পাড়ার জনৈক আবুল কাশেমের ছেলে দুলাল বসত বাড়ীর পাশে গাঁজা চাষ করেছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করে। সরেজমিনে এসে দেখা গেছে,এক বিঘা জমিতে প্রায় দুই শতাধিক গাঁজা গাছ দেখা গেছে। দুলাল পলাতক থাকলেও তার স্ত্রী শেফালী খাতুন (৪০), ছেলে শাকিল আহমেদ (২০) ও মেয়ে শিউলী (১৭) কে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। সেই সাথে গাঁজা গাছগুলো কর্তন করে আলামত হিসেবে সংরক্ষণ করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, এর সাথে আরো কোন ব্যক্তির সম্পৃক্ততা রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) মোস্তাফিজুর রহমান,গাংনী থানা পুলিশের ইন্সপেক্টর (তদন্ত) সাজেদুল ইসলামসহ অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

No comments:

Post a Comment